আজ ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


৪৬তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, সর্বোচ্চ নিয়োগ স্বাস্থ্যে

(আজকের দিনকাল):৪৬তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। এ বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে নিয়োগ পাবেন ৩ হাজার ১৪০ জন প্রার্থী। গত ১০টি বিসিএসের হিসাবে এবারই রেকর্ড সংখ্যক পদে বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হলো। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি এক হাজার ৬৯৮টি পদ স্বাস্থ্য ক্যাডারে।

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (ক্যাডার) যুগ্মসচিব আনন্দ কুমার বিশ্বাসের সই করা এ বিজ্ঞপ্তি ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের বিভিন্ন ক্যাডারে শূন্য পদসমূহ প্রতিযোগিতামূলক ৪৬তম বিসিএস পরীক্ষা-২০২৩ এর মাধ্যমে পূরণের জন্য যোগ্য প্রার্থীদের কাছ থেকে অনলাইনে আবেদনপত্র আহ্বান করা হলো। আগামী ১০ ডিসেম্বর সকাল ১০টা থেকে আবেদন শুরু হবে। এ প্রক্রিয়া চলবে ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত।

বিজ্ঞপ্তির তথ্যানুযায়ী, সাধারণ ক্যাডারসমূহে ৪৮৯টি, প্রফেশনাল বা টেকনিক্যাল ক্যাডারসমূহে ২ হাজার ৭৪টি, সাধারণ শিক্ষায় ৫২০ ও কারিগরি শিক্ষায় ৯১টি পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

তবে ক্যাডারভিত্তিক হিসাবে সবচেয়ে বেশি নিয়োগ দেওয়া হবে স্বাস্থ্যে। এই ক্যাডার সহকারী সার্জন পদে এক হাজার ৬৮২ জন এবং সহকারী ডেন্টাল সার্জন পদে ১৬ নিয়োগ পাবেন। এছাড়া প্রশাসন ক্যাডারে ২৭৪, পররাষ্ট্র ক্যাডারে ১০, পুলিশ ৮০, তথ্যে ৫২টি পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

এছাড়া বিজ্ঞপ্তির পদ পরবর্তীতে বাড়তে পারে বলেও জানিয়েছে পিএসসি। এ নিয়ে পিএসসির বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, নতুন পদসৃষ্টি, পদবিলুপ্তি, পদোন্নতি, অবসরগ্রহণ, মৃত্যু, পদত্যাগ অথবা অপসারণজনিত কারণে বিজ্ঞাপিত শূন্য পদের সংখ্যা পরিবর্তন হতে পারে।

পিএসসি সূত্র জানিয়েছে, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে ৪৬তম বিসিএসে জনবল চাহিদা পাঠানো হয়। সেখানে ৩ হাজার ১০০ পদের কথা উল্লেখ ছিল। তবে বৃহস্পতিবার সকালে পিএসসির এক সভায় ৪০টি ক্যাডার পদ বাড়ানো হয়। এতে মোট ৩ হাজার ১৪০টি ক্যাডার পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

bgb

আবেদনকারীর বয়সসীমা
সাধারণ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে আবেদনের জন্য বয়সসীমা হতে হবে ২১-৩০ বছর। অর্থাৎ সর্বনিম্ন বয়স ২১ বছর এবং সর্বোচ্চ ৩০ বছর। প্রার্থীর জন্ম তারিখ হতে হবে ২০০২ সালের ২ নভেম্বর থেকে ১৯৯৩ সালের ২ নভেম্বর।

বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান, প্রতিবন্ধী প্রার্থী ও স্বাস্থ্য ক্যাডারের ক্ষেত্রে বয়সসীমা ২১-৩১ বছর। সেক্ষেত্রে প্রার্থীর জন্মতারিখ ২০০২ সালের ২ নভেম্বর থেকে ১৯৯১ সালের ২ নভেম্বরের মধ্যে হতে হবে।

বিসিএস সাধারণ শিক্ষা ও কারিগরি শিক্ষা ক্যাডারের জন্য শুধুমাত্র ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী প্রার্থীর ক্ষেত্রে বয়সসীমা ২১-৩২ বছর। জন্মতারিখ হতে হবে ২০০২ সালের ২ নভেম্বর থেকে ১৯৯১ সালের ২ নভেম্বরের মধ্যে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত বয়সসীমার কম বা বেশি হলে প্রার্থীর আবেদনপত্র গ্রহণযোগ্য হবে না। এছাড়া চাকরিরত প্রার্থীকে অবশ্যই নিয়োগকৃত কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়েই বিসিএসের প্রিলিমিনারি, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা অংশ নিতে হবে।

Share

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ