আজ ১৬ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ২৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


দেশে প্রথম বিমানের আদলে ট্রেনে নারী এটেনডেন্ট

(আজকের দিনকাল):দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থায় উন্নয়ন-সমৃদ্ধি ও উৎকর্ষতার হাত ধরে ট্রেন সার্ভিসেও বিমানের মতো যোগ হয়েছে নারী এটেনডেন্ট। রেল যোগাযোগে ইতিহাস সৃষ্টি করা ঢাকা-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল পথে প্রথমবারের মতো বিমানবালার আদলে দেওয়া হয়েছে নারী এটেনডেন্ট। শুক্রবার প্রথমদিনে নারী এটেনডেন্টরা যাত্রীদের ফুল দিয়ে বরণ করেন। নতুন এ আয়োজনে উচ্ছ্বসিত যাত্রীরাও।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টায় প্রথমবারের মতো ২০টি কোচ নিয়ে কক্সবাজার থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় কক্সবাজার এক্সপ্রেস। প্রথম দিনে যাত্রী ছিল এক হাজার ২০ জন। যাত্রীদের প্রয়োজনীয় সেবায় নিয়োজিত ছিলেন ২৪ জন এটেনডেন্ট (ট্রেন হোস্টেস)। এর মধ্যে রেলের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো দায়িত্বপালন করছেন ৯ জন নারী এটেনডেন্ট।

ইতোমধ্যে আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে ২৬ জন নারী এটেনডেন্ট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া, আগামী ১ জানুয়ারি থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেল পথ চালু হতে যাওয়া নতুন সুবর্ণ এক্সপ্রেসেও আসা-যাওয়া মিলে ২০ জন নারী এটেনডেন্ট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আউটসোর্সিং পদ্ধতিতে অস্থায়ী ভিত্তিতে তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়।
বাংলাদেশ রেলওয়ে ক্যাটারিং-অনবোর্ড সার্ভিস প্রোভাইডার ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. শাহ্আলম বলেন, প্রথমবারের মতো কক্সবাজার থেকে ঢাকা রেল চলাচল করে দেশে একটি ইতিহাস তৈরি হয়েছে।

এই ইতিহাসে আরেকটি সংযোজন হলো প্রথমবারের মতো বিমানবালার আদলে ৯ নারী এটেনডেন্ট দায়িত্ব পালন করছেন। আগামী ১ জানুয়ারি চালু হতে যাওয়া সুবর্ণ এক্সপ্রেসেও ২০ জন নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষামূলক এ দুটি সার্ভিসে নতুন করে নারী এটেনডেন্ট কাজ করবেন। সাধারণ যাত্রীরা এতে সন্তুষ্ট হলে আগামীতে এ সার্ভিস আরও সমৃদ্ধ করা হবে। এর মাধ্যমে দেশে নারীদের নতুন করে একটি কর্মসংস্থানও তৈরি হবে।
জানা যায়, প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হয় দোহাজারী-কক্সাবাজার রেল লাইন। গত ১১ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দোহাজারী-কক্সবাজার পর্যন্ত রেল লাইন উদ্বোধন করেন। এর পর শুক্রবার সকালে প্রথম বাণিজ্যিকভাবে কক্সবাজার থেকে ঢাকা-চট্টগ্রাম-কক্সাবাজার রেল চলাচল শুরু হয়। প্রাথমিকভাবে ঢাকা-চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেল পথে কোরিয়া থেকে আমদানিকৃত কোচ দিয়ে ৮১৩ ও ৮১৪ নম্বরের এক জোড়া আন্তঃনগর ট্রেন চালানো হবে। সপ্তাহের সোমবার ও মঙ্গলবার ট্রেন চলাচল বন্ধ থাকবে। ঢাকা থেকে কক্সবাজারের রেল পথের দুরত্ব ৫৩৫ কিলোমিটার এবং চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের রেলপথ দূরত্ব ১৫০ দশমিক ৮৭ কিলোমিটার।

Share

এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ