আজ ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অনশন ভেঙে প্রাইভেট শিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

(আজকের দিনকাল):অনশন ভেঙে প্রাইভেট শিক্ষক আল মামুনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা করেছেন এক ছাত্রীর বাবা। বুধবার রাতে বরগুনা জেলার
তালতলী থানায় এ মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। দ্রুত শিক্ষক আল মামুনকে গ্রেফতারের দাবি জানিয়েছেন ওই ছাত্রী এবং এলাকাবাসী।

পুলিশ হেফাজতে বৃহস্পতিবার ওই ছাত্রীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, গত সোমবার দুপুরে উপজেলার বড়বগী ইউনিয়নের তালুকদারপাড়া গ্রামের আমির হোসেনের ছেলে প্রাইভেট শিক্ষক আল মামুনের বাড়িতে বিয়ের দাবিতে অনশন বসেন এক ছাত্রী। বিয়ে না করলে তিনি আত্মহত্যার হুমকি দেন। কিন্তু তিন দিন পেরিয়ে গেলেও আল মামুন ও তার পরিবার বিয়ের বিষয়ে পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। নিরুপায় হয়ে অনশন ভেঙে ফেলেন ওই ছাত্রী।

বুধবার রাতে ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে তালতলী থানায় আল মামুনকে প্রধান আসামি করে দুইজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। ছাত্রীর অভিযোগ- বিয়ের কথা বলে শিক্ষক আল মামুন তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেছেন। এখন বিয়ে করবেন না বলে টালবাহানা করতে থাকেন। ওই ছাত্রী আল মামুনের বাড়িতে অনশনে আসার খবর পেয়ে শিক্ষক গা-ঢাকা দিয়েছেন। গত তিন দিনেও তার হদিস পাওয়া যায়নি।

ওই ছাত্রী বলেন, তিন দিন অনশনের পরেও আল মামুন ও তার পরিবার বিয়ের বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়নি। পরে আমি অনশন ভেঙেছি। এ ঘটনায় আমার বাবা বাদী হয়ে আল মামুনসহ দুইজনের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন।

শিক্ষক আল মামুনের বাবা আমির হোসেন বলেন, ছেলেকে খুঁজে পাচ্ছি না। কার সঙ্গে বিয়ে দেব? শুনেছি মেয়ের পরিবার মামলা করেছে। এখন যা হবার তাই হবে।

মামলার বাদী বলেন, মান-ইজ্জত আর কিছুই রইল না। একেবারে নিরুপায় হয়েই মামলা করেছি। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

তালতলী থানার ওসি শহিদুল ইসলাম খান বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় মামুনসহ দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ওই ছাত্রীকে পুলিশ হেফাজতে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামি গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ