আজ ৯ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৪শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

অ্যাকজেনটেক দেশে প্রথম নিয়ে এলো ‘সাইফার’

(আজকের দিনকাল):যাত্রা শুরু করেছে দেশের প্রথম সার্টিফায়েড টিয়ার ফোর কমার্শিয়াল কো লোকেশন ডাটা সেন্টার ‘সাইফার।’ রবি আজিয়াটা লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান অ্যাকজেনটেক আনুষ্ঠানিকভাবে সাইফারের যাত্রা শুরুর ঘোষণা দিয়েছে। অত্যাধুনিক প্রযুক্তির এই ডাটা সেন্টারটি যশোরে শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে অবস্থিত।

শুক্রবার শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে সাইফার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জিএসএম জাফরউল্লাহ এনডিসি।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রবির এমডি ও সিইও রাজীব শেঠি, অ্যাকজেনটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও আদিল হোসেন নোবেল, রবির চিফ করপোরেট ও রেগুলেটরি অফিসার সাহেদ আলমসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন যশোর পৌরসভার মেয়র হায়দার গণি খান পলাশ।

অ্যাকজেনটেক পিএলসির এই সাইফার দেশের প্রযুক্তিগত উন্নয়নের পাশাপাশি উদ্ভাবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। দেশের প্রিমিয়ার ডাটা সেন্টার হিসেবে সর্বোচ্চ নির্ভরযোগ্যতা, নিরাপত্তা ও কার্যকর আস্থার নিশ্চয়তা দেয় সাইফার, ডিজিটাল ক্ষেত্রে যা বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

যশোরে ১৬ হাজার ৫০০ বর্গফুটের সাইফারের ভবনটিতে আছে পাওয়ার ব্যাকআপ, অ্যাডভান্সড কুলিং মেশিনারিসহ অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও সাইফার কাজ করে যাওয়ার সক্ষমতা রাখে। ডিজিটাল অবকাঠামোর মান নিরূপণে বিশ্বব্যাপি স্বীকৃত সংস্থা আপটাইম ইনস্টিটিউটের কাছ থেকে সম্মানজনক টিয়ার ফোর সনদ অর্জন করেছে সাইফার।

অ্যাজেনটেক পিএলসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও আদিল হোসেন নোবেল বলেন, ‘স্মার্ট বাংলাদেশ নির্মাণে সাইফার একটি মাইলফলক। বড় পরিসরে ডাটা সেন্টারের অভিজ্ঞতাকে পুঁজি করে দেশের কারিগরি উৎকর্ষের জন্য স্মার্ট ডাটা ম্যানেজমেন্টের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে সাইফার। ডাটা সেন্টার স্থাপনে আমাদের সহযোগিতা করার জন্য মাননীয় মন্ত্রী, আইসিটি বিভাগ, বিএইচটিপিএ এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট সব বিভাগকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই।’

রবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও রাজীব শেঠি বলেন, ‘সাইফার এর যাত্রা শুরু হওয়াটা বাংলাদেশের স্মার্ট উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাওয়ার একটি দারুণ পদক্ষেপ। রবি বাংলাদেশের প্রযুক্তিগত উন্নয়নের প্রতি অঙ্গীকারবদ্ধ। সাইফারের যাত্রা রবির সেই প্রতিশ্রুতিকেই তুলে ধরে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত দেশের প্রথম ডিজিটাল জেলা যশোরে উদ্বোধন হলো দেশের প্রথম সার্টিফায়েড টিয়ার ফোর কমার্শিয়াল কো লোকেশন ডাটা সেন্টার সাইফার। অ্যাকজেনটেক ও রবির এমন উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে ।
তিনি বলেন, আমরা গর্বের সঙ্গে বহির্বিশ্বকে বলতে পারি যে, আমাদের দেশেও বিশ্বমানের ডাটা সেন্টার রয়েছে। এই পথ অন্যরাও অনুসরণ করে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নকে আরও সমৃদ্ধশালী করবে বলে আশা প্রকাশ করেন জুনাইদ আহমেদ পলক।

Share

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরীর আরো সংবাদ